Home পশ্চিমবঙ্গ দলের প্রার্থী পছন্দ না হলে পঞ্চায়েত ভোটের মত খেলা হবে- গীতালদহে সভা...

দলের প্রার্থী পছন্দ না হলে পঞ্চায়েত ভোটের মত খেলা হবে- গীতালদহে সভা করে দাবি করলো বিক্ষুদ্ধ তৃনমূল গোষ্ঠী।  

abu al azad
abu al azad
bikkhov
নতুন মুখের দাবিতে বিক্ষোভ

নিজস্ব সংবাদদাতা, গিতালদহঃ বিধানসভায় প্রার্থী ঘোষনার গুঞ্জন বাড়তেই গোষ্ঠী কোন্দল বাড়ছে তৃনমূল কংগ্রেসে । এবারে নির্বাচনে সিতাই কেন্দ্রে নতুন প্রার্থী করার জন্য সভা হল গিতালদহে বৃহস্পতিবার ।  দিনহাটা-১ ব্লক তৃনমূল কংগ্রেসের ব্যানারে অনুষ্ঠিত এই মিটিং বিধায়ক বিরোধী গোষ্ঠী মিলিত হন। সভা চলাকালীন বর্তমান বিধায়কের পরিবর্তে নতুন মুখ নিয়ে আসার জন্য স্লোগান দেয় কর্মীরা।বিধায়ক পদে নতুন মুখ আনার জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে বার্তা দেওয়া হয়েছে বলে ব্লক নেতৃত্বরা কর্মীদের আশ্বস্থ করেন । দলের প্রার্থী পছন্দ না হলে অন্য খেলা হবে বলে একাধিক নেতা ইংগিত দেন।

ওকড়াবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের বিক্ষুদ্ধ তৃনমূল কর্মী আব্দুল জলিল ওরফে বুলেট বাবু বলেন, বিধানসভা নির্বাচনে জেতার পরেই বিধায়ক গায়েব হয়ে গেছেন। বিধায়ক কে খুঁজে পাওয়া যায় না। এবারে সিতায়ে জিততে হলে নতুন মুখ আনতে হবে।

FOR LATEST NEWS & UPDATE ; JOIN OUR WHATSUP GROUP

দিনহাটা-১ ব্লক তৃনমূল কংগ্রেস সভাপতি প্রসন্নদেব শর্মা বলেন, দলের প্রার্থী নির্বাচন করবেন দলনেত্রী। আমাদের বিধানসভায় প্রার্থী পরিবর্তন করার জন্য রাজ্য নেতৃত্বকে জানানো হয়েছে। তাঁরা সঠিক সিদ্ধান্ত নেবে।

আবু আল আজাদ
বক্তব্য রাখছেন আবু আল আজাদ

গিতালদহ-১ গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান আবুয়াল আজাদ বলেন, দাম্ভিকতা ভালো নয়। বিধায়ক এলাকায় এসে কর্মীদের নিয়ে বৈঠক করে তাদের ক্ষোভের কথা শুনলে সমস্যার কথা শুনলেই সমস্যা মিটে যায়। যদি সেটা না করেন তাহলে সিতাই বিধান সভায় নির্বাচনে লড়াই হবে খেলাও হবে। দলের নির্বাচন করা প্রার্থী আমাদের পছন্দ না হলে কি করবো তা প্রকাশ্য জনসভায় বলবো না।

লোকসভা নির্বাচনে সিতাই বিধানসভায় তৃনমূল এগিয়ে থাকেলেও বর্তমানে গোষ্ঠী কোন্দলের স্বস্তিতে নেই তাঁরা। বিধায়ক পরিবর্তনের দাবিতে সভা হল গিতালদলে। আর সেই সভায় উপস্থিত থাকলেন দলের ব্লক সভাপতি, যুব সভাপতি সহ একাধিক গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সহ ব্লক নেতৃত্বরা ।

সভায় বক্তারা দাবি করেন, বিধায়কের ভুলের মাশুল দিতে হয়েছে গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে। সঠিক ব্যক্তিকে প্রার্থী না করায় নির্দল হয়ে লড়াই করে অনেক কর্মী। আর সেখানেই নাকি তাঁরা দলের মনোনীত প্রাথীদের সরিয়ে একাধিক গ্রাম পঞ্চায়েতে ক্ষ্মতায় আসে নির্দলরা । পঞ্চায়েতে যে খেলা হয়েছে বিধান সভায় প্রার্থী পছন্দ না হলে সেই খেলা আবার হবে বলে হুশিয়ারী দেয় নেতৃত্বরা। তবে বিধায়ক তাদের ক্ষোভের কথা শুনলে বিষয়টি মিটে যাবে বলে দাবি করেন তাঁরা।

 

1 COMMENT

Leave a Reply

%d bloggers like this:
Skip to toolbar