Home পশ্চিমবঙ্গ ঘুষ নিয়ে ভোট দিলে হতে পারে জেল : নির্বাচন কমিশন

ঘুষ নিয়ে ভোট দিলে হতে পারে জেল : নির্বাচন কমিশন

 

কোচবিহার
ঘুষ নিলে হতে পারে জেল ।

নিজস্ব সংবাদদাতা, কোচবিহারঃ  ভোটের আগে  ভোটারদের প্রভাবিত করতে অনেকের বাড়িতে উপহার হিসেবে  পৌছে যায় শাড়ি। বাড়িতে ভোটার সংখ্যা বেশি হলে টিভি ফ্রিজ অবধি পাঠানোর অভিযোগ উঠে।  কিন্তু এগুলি গ্রহন করে ভোট দিলে হতে পারে জেল । উৎকোচ গ্রহিতা বা প্রেরণকারীর দুইজনেই সাজা পেতে পারে। নির্বাচনী বিধি লাগু হতেই অবাধ নিরপেক্ষ ভোট করতে তৎপর হয়েছে জেলা প্রশাসন। ফ্লাইং স্কোয়াড তৈরি করে ঘুষ দিতে যাওয়া ব্যক্তি বা গ্রহিতার খোজ করে বেরাচ্ছে প্রশাসন।

 

কোচবিহার জেলা শাসকের বক্তব্য

কোচবিহার জেলা নির্বাচনী আধিকারিক পবন কাদিয়ান বলেন, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। ভোটারদের যাতে কেউ ভয় দেখাতে না পারে তার জন্য ফ্লাইং স্কোয়াড তৈরি করে জেলা জুড়ে নজর দারী চালানো হচ্ছে। নির্বাচন প্রক্রিয়া চলাকালীন কোনো ব্যক্তিকে অবৈধভাবে ভোট দানে প্রভাবিত করার উদ্দেশ্যে কেউ অর্থ বা পারিতোষিক প্রদান করলে বা নিজে ওই অর্থ গ্রহন করলে আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ভোট গ্রহণের দিন ক্ষন আসতে আসতে বেশ ভালোই গরম পড়বে এই কোচবিহার জেলায়। সেই সময়ে গরম থেক রেহাই দিতে আপনার বাড়িতে এসি লাগানোর প্রস্তাব দিল কেউ। পরিবর্তে এসি প্রদানকারীর পছন্দের ব্যক্তিকে ভোট দিতে হবে আপনাকে। আপনী ভাবছেন এসি নিয়ে ভোট দিলে কেউ কিছু জানতে পারবে না। তবে সাবধান। অবৈধ উদ্দেশ্যে উপহার গ্রহন করলে সোজা শ্রীঘরে যেতে হবে আপনাকে।   এরকম ব্যক্তিদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে প্রশাসন।  উৎকোচ নিয়ে ভোট দিলে এক বছর অবধি জেল হতে পারে আপনার।নির্বাচন এলেই ভোটার দের প্রভাবিত করতে বাহুবল প্রয়োগ বা ঘুস দেওয়ার অভিযোগ উঠে প্রতিবার। এবারে যাতে এরকম  কোনো ঘটনা না ঘটে তার জন্য নির্বাচনী বিধি লাগু হতেই তৎপর হয়ে উঠছে কোচবিহার প্রশাসন। ফ্লাইং স্কোয়াড তৈরি করে জেলা জুড়ে নজর দারী চালানো হচ্ছে। কেন্দ্রীয় বাহিনী টহলদারি শুরু করেছে জেলা জুড়ে। শুধু বাহু বলীদের নিয়ন্ত্রন নয় অনৈতিক লেনদেনের মাধ্যমে যাতে ভোটাররা প্রভাবিত না হন সেদিকেও নজর দারী করা হচ্ছে।  ২৭ মার্চ রাজ্যে ভোট গ্রহন শুরু হচ্ছে। আট দফায় ভোট গ্রহণের জন্য ইতি মধ্যে রাজ্য জুড়ে নির্বাচনী বিধি লাগু করেছে নির্বাচন কমিশন। এবার ভোটার দের সচেতন করতে প্রচারে নামছে তারা।ভয় ভীতি হীন পরিবেশে প্রভাবিত না হয়ে যাতে ভোট গ্রহন প্রক্রিয়া সম্পুর্ন হয় তার জন্য ইতি মধ্যে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। ভোটারদের  ভয় প্রদর্শন বা প্রভাবিত করার চেষ্টা হলে আইনী ব্যবস্থা নিবে নির্বাচন কমিশন। ভোটার দের ঘুষ দিয়ে প্রভাবিত করার চেষ্টা  করলে বা কোনো ভোটার উৎকোচ গ্রহন করে ভোট দিলে এক বছর অবধি জেল বা  জরিমানা অথবা উভয় হতে পারে বলে নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে। কোনো ব্যক্তি ভোটার দের ভয় দেখালে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

NO COMMENTS

Leave a Reply

%d bloggers like this:
Skip to toolbar